মনামি উপাখ্যান > অনেক কাজ পড়ে আছে >

২২ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ১১:১৭ |

মনামি তুমি কি চিৎকার করে উঠেছিলে?
না।
মনামি তুমি জান্তব চিৎকার করে উঠেছিলে।
হ্যাঁ।
মনামি ওরা সাতজন ছিল,সাতজন মনামি!
হ্যাঁ।
মনামি,একের পর এক! কোন বিরাম ছিলনা?
না।
মনামি তোমার প্রাণ ঠোঁটের কাছে উঠে এসেছিল!
হ্যাঁ।
মনামি তুমি অসহ্য যন্ত্রনায় কুঁকড়ে উঠেছিলে!
হ্যাঁ।
মনামি একটা সময় তোমার আর যন্ত্রনা হয়নি।
হ্যাঁ।
তোমার শরীরে ওরা উঠছিল আর নামছিল!
হ্যাঁ।
সাতটা পশু,সাতটা দানব,সাতটা দেবতা মনামি!
হ্যাঁ।
আঃ!মনামি তুমি কি করে সইলে অপার্থীব সেই কষ্ট?
….
মনামি উত্তর দাও…তুমি কি করে বাঁচলে?
….
মনামি তার পরও তুমি বাঁচতে চেয়েছ!!
হ্যাঁ।
কারণ তুমি জ্ঞান হারিয়ে আবার জেগেছিলে!
হ্যাঁ।
তুমি একটা সদ্যজাত বাছুরকে দৌড়াতে দেখেছিলে!
তুলতুলে হাঁসের বাচ্চাকে জলে নামতে দেখেছিলে!
দুইটি মুনিয়াকে নিঃশব্দ বসে থাকতে দেখেছিলে!
পা-ভাঙ্গা কুকুরকে হেঁচড়ে ঘরে ফিরতে দেখেছিলে!
শালিকের বাচ্চাগুলোর হা-করা মুখ দেখেছিলে!
হ্যাঁ।
হ্যাঁ।
হ্যাঁ।
আর কোটি কোটি ক্ষুধিত মুখ দেখেছিলে মনামি….
হ্যাঁ।
নতুন একটা রক্তবর্ণ সূর্য উঠতে দেখেছিলে তুমি….
হ্যাঁ।
আঃ! মনামি তুমি কি করে এখনো জীবনাম্মৃত হয়ে বাঁচার স্বপ্ন দেখ ???

হ্যাঁ।মনামি বাঁচার স্বপ্ন দেখে। মানুষ সততই বাঁচার স্বপ্ন দেখে।স্বপ্ন দেখা ছাড়া মানুষ বাঁচতে পারেনা। ভেঙ্গে যাওয়া স্বপ্নগুলো জোড়া লাগেনা জেনেও মানুষ কি এক পর্ব্বতসমান ঐকান্তিকতায় সে সব জোড়া লাগানোর চেষ্টা করে যায়। মনমি দুটি কারণে বাঁচতে চায়ঃ স্বপ্ন দেখতে এবং স্বপ্নের অশরীরী আস্তাকুড় থেকে নির্মম বাস্তবতার আঁচলে ছেঁকে তুলে আনতে চায় একটি ছোট্ট ঘুণপোকাকে…………………………..যার নাম-জিঘাংসা !!!

উত্তাল ধুলিঝড়……………

 

লেখাটির বিষয়বস্তু(ট্যাগ/কি-ওয়ার্ড): মনামিমনামি ;
প্রকাশ করা হয়েছে: এলেবেলেকবিতা  বিভাগে । সর্বশেষ এডিট : ১০ ই জুন, ২০১০ রাত ২:২২ |

 

২৮২ বার পঠিত৩৯১২

৩৯টি মন্তব্য

১. ২২ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ১১:১৯

বরুণা বলেছেন: খুব সুন্দর!!

২২ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ১১:৪৮

লেখক বলেছেন: আমি/মনামি/আমরা/মনামিরা/
আমাদের আশেপাশে/আমাদের ভেতর-বাইরে………………..কেবলই মনামি।

২. ২২ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ১১:২২

বৃত্তবন্দী বলেছেন: স্যালুট বস…

২২ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ১১:৫৯

লেখক বলেছেন:
মনামিরা মরে না কমরেড !!

৩. ২২ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ১১:২৩

রাতমজুর বলেছেন: হুম…

২৩ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ১২:১৯

লেখক বলেছেন: মনামি ‘রাতমজুর’রে ভাল পায়। তার “হুম…” রে কেমুন পায় জিগাইতে হইব !

৪. ২২ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ১১:২৭

রাতের বৃষ্টির শব্দ বলেছেন: “ভেঙ্গে যাওয়া স্বপ্নগুলো জোড়া লাগেনা জেনেও মানুষ কি এক পর্ব্বতসমান ঐকান্তিকতায় সে সব জোড়া লাগানোর চেষ্টা করে যায়। ”

এর পর আর বলার কি থাকতে পারে, অসাধারন ও বলতে পারছি না। তার চেয়েও ভাল লাগল লাইনটা।

ভাল থাকবেন

২৩ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ১২:৩৮

লেখক বলেছেন:

আপনার ভাল লেগেছে মানে আপনি এর পর আরো ভাল লিখবেন। পড়তে থাকুন। লিখতে থাকুন।
শুভেচ্ছা।

৫. ২২ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ১১:৩০

নিবিড় বলেছেন: +++++++++++++++++++++++
++++++++++++++++++
++++++++++++++্
++++++++++
++++++++
++++++
+++
+(কমেন্টের বাইরে রাখলাম লিখাটি )

২৩ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ১:১২

লেখক বলেছেন:

দাঁড়ান, আগে ক্যালকুলেটর বের করি………

৬. ২২ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ১১:৩১

বিষাক্ত মানুষ বলেছেন: জিঘাংসার পরিনতি কি হয়েছিলো ?

২২ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ১১:৩৫

লেখক বলেছেন:

“উত্তাল ধুলিঝড়……………”

এটা পরের পর্বে।

৭. ২২ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ১১:৩৫

বহুরূপী মহাজন বলেছেন: মনামি = আমার বন্ধু

২৩ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ১:৪৪

লেখক বলেছেন:
মনামি আমাদের বন্ধু। আমাদের বোন। আমাদের মেয়ে।

৮. ২২ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ১১:৩৭

একরামুল হক শামীম বলেছেন: ঠিকই….উত্তাল ধুলিঝড়…….

২৩ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ২:০১

লেখক বলেছেন: হ্যাঁ শামীম। .উত্তাল ধুলিঝড়…

৯. ২৩ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ১২:০০

আইরিন সুলতানা বলেছেন: তুমুল আলোড়ন আপনার লেখায় …

এই উত্তাল ঘূর্ণিঝড় ঘিরে ফেলুক সবাইকে …

++

২৩ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ২:১৩

লেখক বলেছেন:
ধন্যবাদ আইরিন আপনাকে।
ভাল খাকুন।

১০. ২৩ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ১২:০০

মৈথুনানন্দ বলেছেন: সাতটি দেবতা কি অর্থে ব্যবহার করা হয়েছে, কন্ট্র্যাস্ট তো বুঝলুম, কিন্তু কেন?

২৩ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ১২:০৫

লেখক বলেছেন:
সাত রংয়ের সাত ধরণের নিপীড়ক।

১১. ২৩ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ১২:০২

জলে ভাসা পদ্ম আমি বলেছেন: +++++++++++++++++++++

২৩ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ২:৪৬

লেখক বলেছেন: ধন্যবাদ আপনাকে।

১২. ২৩ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ১২:২৪

অপ্‌সরা বলেছেন: মনামী কে দেখতে পাচ্ছি চোখের সামনে।

২৩ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ ভোর ৪:১৮

লেখক বলেছেন:
এখানে ওখানে মনামিরা আছে। মনামিদের তো থাকতেই হয়।
আপনার এত সুন্দর অনুভূতিকে আন্তরিক ধন্যবাদ। ভাল থাকবেন।

১৩. ২৩ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ১:১৭

তারার হাসি বলেছেন:
নির্বাক আমি…
উত্তাল ধুলিঝড়ে আমি
অপেক্ষায় আমি।

২৩ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ১:৩২

লেখক বলেছেন:

মনামিকষ্টে ব্যথিত আমি।
মনামি জীবনের সাথী আমি।
উত্তাল ধুলিঝড়ের মুখোমুখি
দাঁড়ায় আমার মনামি।

ধুলিঝড়ে চোখ বন্ধ করে
হাঁটতে শেখেনি মনামি।

১৪. ২৩ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ২:১৬

ফাঁকি বাজ বলেছেন: ঝরঝরে কবিতা রক্ত ঝরালো মনে

২৩ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ ভোর ৪:১৯

লেখক বলেছেন: আপনাকে অজস্র ধন্যবাদ।

১৫. ২৩ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ২:১৭

ফাঁকি বাজ বলেছেন: আমার ব্লগেও সময় পেলে আসবেন কবি।আপনাকে শ্রদ্ধা

২৩ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ ভোর ৪:৩৮

লেখক বলেছেন:

নিশ্চই যাব। আপনি যখন অকাতরে শ্রদ্ধা জানালেন, তখন সেই অধিকারেই একটা অনুরোধ করলাম। যদি কোন কারণে খুব বেশী প্রিয় না হয়, তাহলে আপনার এই প্রফাইল ছবিটা বদলানোর দাবী জানালাম। ভাল থাকবেন।

১৬. ২৩ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ৮:১৫

মনজুরুল হক বলেছেন:
@ফাঁকি বাজ।চমৎকার একটি প্রফাইল ছবি! অনুরোধটা রাখায় আপনাকে আন্তরিক ধন্যবাদ।

১৭. ২৩ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ৮:১৯

রাতমজুর বলেছেন: পরেরটা দেন।

১১ ই জানুয়ারি, ২০০৯ রাত ১১:৪৭

লেখক বলেছেন: দেওয়া তো শেষ!!

১৮. ২৪ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ ভোর ৫:১৫

সুলতানা শিরীন সাজি বলেছেন: ভালো লাগলো মনামি উপাখ্যান > অনেক কাজ পড়ে আছে >

শুভেচ্ছা নিন।
ভালো থাকবেন।

২৪ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ ভোর ৫:২৩

লেখক বলেছেন:
আপনিও ভাল থাকবেন।
শুভেচ্ছা রইল।

১৯. ২৬ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ বিকাল ৩:৩৯

ফাঁকি বাজ বলেছেন: আপনাদের কথাতেই পাল্টে দিলাম দাদা

২৬ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ রাত ১০:৪২

লেখক বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ দাদা! এই নামে আমার ভাই-বোনেরা ডাকে! খুবই নষ্টালজিক!!

২০. ২৬ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ বিকাল ৩:৩৯

ফাঁকি বাজ বলেছেন: আসলেন না তো

২৬ শে ডিসেম্বর, ২০০৮ বিকাল ৫:৫৩

লেখক বলেছেন: খেয়াল করেননি। আপনার পোস্টে কমেন্ট করে এসেছি তো ।
ধন্যবাদ।

 

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s