টুনি গল্প > সিগারেটের ছাই কফির কাপ এবং অরুণিমা >

58315_148129911888281_128416300526309_298324_2312809_n

০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ রাত ২:১৫ |

কফির কাপ থেকে রুগ্ন ধোঁয়া উঠছিল। ফুট দেড়েক দূরে আরো একটা ধোঁয়ার রেখা উঠে যাচ্ছিল ওপরে। লোকটা আনমনে তাকিয়েছিল উঠে যাওয়া ধোঁয়ার দিকে। কুন্ডলি পাকানো ধোঁয়া খুব ধীরে ধীরে প্রসস্থ হচ্ছিল। সার্সি গলে কায়ক্লেশে আসা ক্ষীণ বাতাস ধোঁয়ার অবয়ব বদলে দিচ্ছিল। ফ্যাকাসে ধূসর রঙের ধোঁয়া অজগরের মত এঁকে-বেঁকে কখনো মানুষের আবার কখনো কিম্ভুত সব আকৃতি নিচ্ছিল। স্মৃতি হাতড়ে রিওয়াইন্ড করা চেনা মুখের আদলে দিব্বি মিলে যাচ্ছিল ধোঁয়ায় গড়া স্কেলিটন। একসময় কফির ধোঁয়া কমে এসেছিল। ডান হাতের সিগারেটের মুখে একটু বাঁকানো ছাই পড় পড়। নিজের ওজনটুকুও আর ধরে রাখতে চাইছিল না। দূরে দেখার মত প্রসস্থ হয়েছিল লোকটার করোনা। ধোঁয়া ভেদ করে বহু দূরের কিছু একটা যেন দেখে নিতে চাইছিল। ছাইয়ের দন্ডটা আরো বড় হয়ে প্রায় যখন পড়েই যাবে তখন লোকটি খুব সর্ন্তপণে আ্যাশট্রে তাক করে ছাই ঝাড়ল! তারপর ভ্রু কুঁচকে লক্ষ্য করল আ্যাশট্রেতে নয়, সে ছাই ফেলেছে কফির কাপে! মুহূর্তে বাঁধ ভাঙ্গা জোয়ারের মত হড়বড় করে এক সাথে হাজারো কথা আর স্মৃতিরা হুটোপুটি করতে লাগল। সেখান থেকে বেছে একটি লাইনই বের করা যায়–বুকের ভেতর প্রচন্ড শক্তি সঞ্চয় করে নিজেকে প্রবোধ দিয়েছিল, অরুণিমা চলে গেলে ওর কিছুই যাবে-আসবে না! কিন্তু অরুণিমা জানল না কি ভয়ানক ক্ষতি করে গেছে লোকটার।

 

লেখাটির বিষয়বস্তু(ট্যাগ/কি-ওয়ার্ড): টুনি গল্প ;
প্রকাশ করা হয়েছে: এন্টি গল্প  বিভাগে । সর্বশেষ এডিট : ১১ ই জুন, ২০১০ ভোর ৪:০১ | বিষয়বস্তুর স্বত্বাধিকার ও সম্পূর্ণ দায় কেবলমাত্র প্রকাশকারীর…

 

 

এডিট করুন | ড্রাফট করুন | মুছে ফেলুন

২৬৪ বার পঠিত০৩০৯

 

মন্তব্য দেখা না গেলে – CTRL+F5 বাট্ন চাপুন। অথবা ক্যাশ পরিষ্কার করুন। ক্যাশ পরিষ্কার করার জন্য এই লিঙ্ক গুলো দেখুন ফায়ারফক্সক্রোমঅপেরাইন্টারনেট এক্সপ্লোরার

 

৩০টি মন্তব্য

১-১৫

১. ০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ রাত ২:১৯০

তামিম ইরফান বলেছেন: স্মৃতি জিনিষটা খুব খারাপ।

০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ রাত ২:৩৮০

লেখক বলেছেন:

অথচ এই স্মৃতিই অসহায় নিরাশ্রয়ী মানুষের একমাত্র অবলম্বন!

তামিম ভাল আছেন তো ? বিরাট একটা গ্যাপে দেখলাম আপনাকে। যদিও আমাদের টাইম-টেবিলে একটু হের-ফের হয়েই যায়…।

২. ০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ রাত ২:২৯০

লেফাফাদুরস্ত বলেছেন: অতীত বিসর্জনের গল্প বড়ই হাহুতাশের! সেখানে ভুল হবেই…ভাগ্য ভালো সিগারেট উলটা ধরায় নাই

০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ রাত ৩:০৬০

লেখক বলেছেন:

উল্টো ধরানো আর কফির কাপে ছাই ফেলার তথাৎ কোথায়? স্মৃতিতাড়িত মানুষ আর অবুঝ শিশু প্রায় একই রকম।

৩. ০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ রাত ২:৪৫০

তামিম ইরফান বলেছেন: ভালো আছি মন্জু ভাই।ব্লগে খুব কমই আসি এখন……পরিচিত ব্লগাররা না থাকলে আসতে ইচ্ছা হয় না…….

আপনি ভালো আছেন আশা করি।

আর মন্জু ভাই আপনি তো আমাকে তুমি করেই সম্বোধন করতেন সবসময়…….হঠাৎ “আপনি” সম্বোধনে অস্বস্থিতে পড়ে গেলাম।

০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ রাত ২:৫৭০

লেখক বলেছেন:

ছিঃছিঃ, আমারই ভুল! দেখলে তো, কিছু দিনের অদেখায় মানুষ কেমন বদলে যায়! আমারও ইদানিং ভাল লাগে না। ব্লগে পড়ে থাকি রাতের ঐ সময়টাতে কিছু করার নেই বলে! ইদানিং ব্লগে বিমা নেই, হোসেইন নেই, কেমন যেন খাপছাড়া লাগে। বিমা শুনেছিলাম দেশে আসার কথা। আসল কিনা তাও জানি না।

ভাল থেকো তামিম।

৪. ০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ রাত ২:৫১০

|জনারন্যে নিসংঙগ পথিক| বলেছেন:

প্রতিটি লাইনেই একটা অনুক্ত যতি টের পাচ্ছি। তাই প্রথম চারটা লাইন কেমন জানি মনোটোনাস – ভুলে যাওয়া উচিত এইরকম স্মৃতির মতোই?

০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ রাত ৩:০৩০

লেখক বলেছেন:

আপনি ঠিক ধরেছেন। আমি ঠিক জানিনা এই ধারার লেখাকে কি নামে অবিহিত করা হয়। তবে বিরাট একটা ক্যানভাসকে ঠেসে-ঠুসে ছোট্ট শপিং ব্যাগে ঢোকানোর চেষ্টা হয়েছে।

হ্যাঁ ভুলে যাওয়াই উচিৎ, ভুলে গেলে এই ব্রম্মান্ডে কারোই কোন কিছু যায়-আসে না, এমন একটা ধী-শক্তি নিজের ভেতরে জায়গা করে পুতে রাখার পরও যখন শেকড় ধরে টান পড়ে তখন আর মানুষের সেই হাহাকার করে ওঠা আবেগব্যথার কাছে পরাজয় স্বীকার করা ছাড়া উপাও থাকে না।

৫. ০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ রাত ২:৫৩০

পাগলা জগাই বলেছেন: কি জানি একটা ধরতে ধরতেও ধরতে পারছি না…কেমন যেন..অনেক পুরনো কথাই হবে…

০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ রাত ৩:১৭০

লেখক বলেছেন:

সুচিত্রা সেন-সঞ্জীব কুমার এর “আঁধি” দেখে থাকলে বুঝতে সুবিধে হতো! অনেক পুরোনো কথাগুলো বারে বারে ক্ষণে ক্ষণে নতুন হয়ে সামনে যখন এসই পড়ে তখন আর তা পুরোনো থাকে না, এক একটা নতুন এপিসোড হয়ে দৃশ্যমান হয়ে ওঠে।

প্রেমাস্পদকে অস্বীকার করা গেলেও প্রেমকে যায় না। সে ফিরে ফিরে আসবেই……

৬. ০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ রাত ৩:১১০

হোরাস্‌ বলেছেন: একটা চটুল মন্তব্য করি — স্মৃতি তুমি বেদনা।

+

০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ রাত ৩:২৩০

লেখক বলেছেন:

স্মুতি সুখের কিংবা দুঃখের, মন্থণ সতত আনন্দের! অস্বীকার করার উপায় কি ?

৭. ০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ রাত ৩:১১০

অ্যামাটার বলেছেন: চিকনমিয়া বলেছেনঃস্মৃতি তুমি বেদানা

গল্পটাতে সূচনার স্বাদ পুরোটা না পেতেই সরে গেল গ্রাস। অরুনিমা’র আগমন, কার্যকারিতা এবং প্রস্থান; সবগুলোই অতি সহসা, কিছু বুঝে ওঠার আগেই…

০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ রাত ৩:৩৫০

লেখক বলেছেন:

বিরাট একটা ক্যানভাসকে ঠেসে-ঠুসে ছোট্ট শপিং ব্যাগে ঢোকানোর চেষ্টা হয়েছে।

এ কারণেই এর নাম “টুনি গল্প”!

৮. ০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ রাত ৩:১৬০

ডিজিটাল কলম বলেছেন: অরুনিমা চলে গেলে ওর কিছুই যাবে-আসবে না! কিন্তু অরুণিমা জানল না কি ভয়ানক ক্ষতি করে গেছে লোকটার।

অদ্ভুত ২টা লাইন…………

০১ লা সেপ্টেম্বর, ২০০৯ রাত ২:০১০

লেখক বলেছেন:

খুব ক্ষতি হয়ে যাওয়া দু’টো লাইন………….

ধন্যবাদ মনযোগ আকর্ষণের জন্য।

৯. ০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ ভোর ৪:২৬০

নাজিম উদদীন বলেছেন: স্মৃতির জন্য আমরা বেঁচে থাকি, স্মৃতি না থাকলে মনে হয় মানুষ বাঁচতে পারত না।

০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ ভোর ৪:৪৫০

লেখক বলেছেন:

ব্যাপারটা মনে হয় খুব সরল! আসলে কিন্তু ভীষণ জটিল! জন্ম আর মৃত্যুকেও এই স্মৃতি দিয়ে তুখোড় ব্যাখ্যা করা চলে।

এই সারা জীবনের স্মৃতি সম্ভার স্তুপে স্তুপে জমে মানুষের স্মৃতিআধারকে এতটাই পরিপূর্ণ করে তোলে যে সেই মানুষ ভাবে এত সব স্মৃতি ফেলে রেখে তাকে মরে যেতে হবে!!! মৃত্যুভীতির সম্ভবত এটাই মূল কারণ।

একজন স্মৃতিভ্রষ্ট মানুষকে মৃত্যুভীতি আচ্ছন্ন করেনা।

১০. ০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ ভোর ৪:২৮০

সোহানা মাহবুব বলেছেন: ধোঁয়ায় গড়া স্কেলিটন—–অ-সা-ধা-র-ণ ইমেজের ব্যবহার।

নস্টালিক লেখা, বেশ ভাল লাগল।

কেমন আছেন?

শুভকামনা রইল।

+++

০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ ভোর ৪:৫০০

লেখক বলেছেন:

আমার লেখায় রূপকের ব্যবহার বোধহয় একটু বেশিই…..

ভাল লাগায় পরিতৃপ্ত বোধ করছি।

“ভাল আছি” না বলাটা খুব আনস্মার্ট দেখায়, তাই কেবলই ভাল আছির সাথে আত্মিয়তা রেখে চলতে হয়, সেভাবেই চলে যাচ্ছে এক একটি দিন, আরো একটি দিনের প্রত্যাশায়…………

আপনি ভাল আছেন? ওখানে কি এখন ম্যাপল লিফ ঝরে পড়ার মত সামার?

১১. ০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ ভোর ৪:৩২০

সুলতানা শিরীন সাজি বলেছেন:

সিগারেটের ধোঁয়ারও যে কত শক্তি…….কত স্মৃতিময়তা তাতে!

ভালোলাগলো টুনি গল্প।

শুভেচ্ছা।

০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ ভোর ৪:৫৬০

লেখক বলেছেন:

স্মৃতি…………………

জানলা খুলে চেয়ে থাকি

চোখ মেলে যতটুকু আলো আসে

সে আলোয় মন ভরে যায়……..

মনে পড়ে? হৈমন্তির কথা?

১২. ০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ ভোর ৫:৩৬০

সোহানা মাহবুব বলেছেন: ম্যাপল লিফ ঝরবে অক্টোবারে। সে সময়টা সত্যি দেখার মত সুন্দর। ওরা সেই সময়টাকে বলে গোল্ডেন মান্থ!!!

সবকিছু সোনা রঙে মোড়ানো,ভাবা যায়না!!

শুভকামনা রইল।

০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ বিকাল ৫:৩৮০

লেখক বলেছেন:

আহা! সবকিছু সোনা রঙে মোড়ানো,ভাবা যায়না!!

আমরা কেবল শরতের বিকেলে কিছুটা সোনারঙ দেখি পশ্চিম আকাশে। আর সারাটা বছরইতো সূর্যতাপে “সোনারঙ” গলে গলে পড়ে!!

হাতে যেদিন টাকা হবে……..ম্যাপল লিফ দেখতে যাব (আমি নিজেই আমার এই আদিখ্যেতায় বিরক্ত হই, দেশেরই কত কিছু এখনো দেখা হলো না! সে আবার যায় ইয়োরোপে!!!)। মানুষ শুনলে হাসে যে, আমি কক্সবাজার দেখিনি!!!!!!!!!!!!!!!!

১৩. ০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ দুপুর ২:৫০০

ভাঙ্গা পেন্সিল বলেছেন: অরুণিমা আর অরুনিমা কি ভিন্ন কেউ?

মজা করলাম। গল্পে স্মৃতিকাতরতার হালকা একটা আবহ বুঝলাম, আর কিছুই বুঝি নাই। তাই বসে বসে নতুন শব্দ আর বানান দেখতে দেখতে ভুল বের করলাম।

০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ বিকাল ৫:৫০০

লেখক বলেছেন:

হা হা হা ! ভেবেছিলাম শিরোনামের পর শেষের অরুণিমা ঠিক করে দেওয়ার পর এটা নিখুঁত! যাচ্চুলোয়! একটা যে রয়ে গেছিল!! ঠিক করলাম। সেই সাথে আরো একটা ভুল খুঁজে পেলাম।

না বোঝার কিছু নেই, ঠিকই বুঝেছেন, তবে জনসমক্ষে প্রচারে ভীতি আছে!! স্মৃতির সঞ্চয় ভাল কিছু নয়!!!

১৪. ০৮ ই আগস্ট, ২০০৯ রাত ৯:১০০

শাহেনশাহ বলেছেন: (Y)

০৯ ই আগস্ট, ২০০৯ রাত ২:২৭০

লেখক বলেছেন: বুঝলাম না!

১৫. ১০ ই আগস্ট, ২০০৯ রাত ২:০২০

আকাশ অম্বর বলেছেন:

দারুণ !!

অনেক শুভকামনা।

২৫ শে আগস্ট, ২০০৯ রাত ১২:৫০০

লেখক বলেছেন:

ধন্যবাদ।

আপনার জন্যেও অনেক শুভকামনা

 

Top of Form

আপনার মন্তব্য লিখুন

কীবোর্ডঃ  বাংলা                                    ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয় ভার্চুয়াল   english

নাম

       

Bottom of Form

 

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s