ডিসক্লেইমার

haveabreakhaveakitkatup7

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ২:১০ |

 

যারা ইতিমধ্যেই আমার চলে যাওয়া নিয়ে পোস্ট দিয়েছেন তাদেরসহ অন্যদের প্রতি
অনুরোধ, দয়া করে এধরণের পোস্ট দেবেন না।

আমি “বিদায় পোস্ট” দিয়ে চলে যাইনি, সুতরাং “ফিরে আসুন” জাতীয় পোস্ট অনভিপ্রেত। দুঃখিত ক্যামেরাম্যান(রঞ্জু ভাই)।

বন্ধু ক্যাটাগরিতে কিছু রুচিহীনের সন্নিবেশের কারণে আমি মাসখানেক ধরে পোস্ট লিখছিনা, কমেন্ট করছিনা। ব্লগে আসছি কালে-ভদ্রে।

ব্যক্তিগত আক্রমন, ট্যাগিং, কুৎসা, গালাগালিতে ভীত হয়ে চলে যাইনি। ওসব কেয়ার করিনা, কারণ সম্মূখ লড়াইয়ে কোন কালেই পিছু হটিনি, কিন্তু গত কয়েক মাস ধরে বন্ধুস্থানীয় কিছু ব্লগারের পোস্টে রাজাকার মানসজাত এবং প্রগতিশীলতার মুখোস পরা কিছু কুলাঙ্গারের বিশ্রী আক্রমনকে সেই সব বন্ধুরা আস্কারা দেওয়ায়,পিঠ চাপড়ে
দেওয়ায় তাদের আস্ফালন সীমা ছাড়ানোয় বন্ধুদের প্রতি বীতশ্রদ্ধ হয়েছি।
সেটা এক ঘরোয়া আড্ডায় বয়োঃজ্যেষ্ঠ্যদের কাছে উল্লেখও করেছি।

পেছন থেকে ছুরি মারা শত্রুর সাথে প্রথাগত লড়াই চলে না।

যেহেতু উপমা নামের মেয়েটির চিকিৎসা বিষয়টা এখনো ঘাড়ে চেপে আছে, সেহেতু আমি চাইলেই ডুব দিতে পারিনা।

মডারেশন নিয়ে কখনোই ব্লগ কর্তৃপক্ষের সাথে কোন মনমালিণ্য ঘটেনি, তাদের পলিসি পছন্দ না হলে নীরবে সরে যাওয়াই আমার নীতি।

ইদানিং মুক্তিযুদ্ধ, যুদ্ধাপরাধের বিচার, পাহাড়ি প্রসঙ্গ নিয়ে ব্লগে যে বিষবাষ্প ছড়ানো হচ্ছে তার বিরুদ্ধে আমার প্রতিবাদ আছে, থাকবে। কর্তৃপক্ষ ‘ফেয়ার ডিবেট’ এর ব্যবস্থা
না নিলে সেটা তাদের জন্যই ক্ষতির কারণ হতে পারে। তবে ব্যক্তিমালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানকে আমার পছন্দমত চলার আব্দার জানাতে পারিনা। জানাইওনি কখনো। আমার পছন্দ না হলে আমি গুডবাই জানাব। সেটা আমার স্বাধীনতা।

যদি প্রয়োজন মনে করি, যদি ভাললাগে তাহলে আবার ব্লগে নিয়মিত হব। আর তা না হলে নীরবেই নিজেকে গুটিয়ে নেওয়াটা স্থায়ী রূপ পাবে। এর সাথে বিদায়,কামব্যাক বা অনুরোধ এর কোন সম্পর্ক নেই।

জনতার কাতারের সাধারণ ব্লগাররা সবাই ভাল থাকুন।

 

লেখাটির বিষয়বস্তু(ট্যাগ/কি-ওয়ার্ড): ডিসক্লেইমার ;
সর্বশেষ এডিট : ১২ ই জুন, ২০১০ ভোর ৪:২৯ | বিষয়বস্তুর স্বত্বাধিকার ও সম্পূর্ণ দায় কেবলমাত্র প্রকাশকারীর…

 

 

এডিট করুন | ড্রাফট করুন | মুছে ফেলুন

৭৫০ বার পঠিত০৭৯৩২

 

মন্তব্য দেখা না গেলে – CTRL+F5 বাট্ন চাপুন। অথবা ক্যাশ পরিষ্কার করুন। ক্যাশ পরিষ্কার করার জন্য এই লিঙ্ক গুলো দেখুন ফায়ারফক্সক্রোমঅপেরাইন্টারনেট এক্সপ্লোরার

 

৭৯টি মন্তব্য

১-৪০

১. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ২:১১০

রাজসোহান বলেছেন: উখে

পুত্তুম পিলাচ

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ৩:৪১০

লেখক বলেছেন: ওক্কে।

২. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ২:১৩০

বোবাবৃক্ষ বলেছেন: সরি বস, তারপরেও আমি এই পোষ্টটি এখনই ডিলিট করছি না।

পেছন থেকে ছুরি মারা শত্রুর সাথে প্রথাগত লড়াই চলে না।

লড়াইয়ের ক্ষেত্রে দাড়িয়ে যোদ্ধা কাওকে ক্ষমা করে না।

সেলুট।।

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ৩:৪৩০

লেখক বলেছেন: সম্ভবত সেটাই।

৩. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ২:১৪০

আরিফ থেকে আনা বলেছেন: বন্ধু ক্যাটাগরিতে কিছু রুচিহীনের সন্নিবেশের কারণে আমি মাসখানেক ধরে পোস্ট লিখছিনা,


এ ব্যাপারে বিস্তারিত লিখেন, মনে ক্ষোভ জমাইয়া রাখা ভালা না। আর সেই রুচিহীন রা যদি সত্যিই রুচিহীন হয়ে থাকে তবে তারাও বদলাবার সুযোগ পাবে যদি বুঝার মানসিকতা থাকে।

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ২:৩২০

লেখক বলেছেন: আমি মনে করি রুচিহীনতার প্রসঙ্গ সামনাসামনি আলোচনা হওয়াই ভাল,

তাই তাদের সামনাসামনিই বলেছি। এবার তারা বদলাবেন না আমি বদলাব

তা সময়ই বলে দেবে।

ধন্যবাদ আরিফ থেকে আনা।

৪. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ২:১৪০

অসময়ের আমি বলেছেন: ২ নাম্বার পেলাচ

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ৩:৪৩০

লেখক বলেছেন: থ্যাঙ্কস।

৫. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ২:১৬০

অদ্ভুত বলেছেন: পিলাচ

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ৩:৪৪০

লেখক বলেছেন: থ্যাঙ্কস।

৬. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ২:২২০

হো*  বলেছেন: ব্লগে আবার নিয়মিত হবেন সেই আশাবাদ রইল।

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ২:৪০০

লেখক বলেছেন: উপমার বিষয়টা নিশ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত মুক্তি নাই। এরই মধ্যে আজমেরীর জন্য একেবারে শেষকালে কিছু টাকার বন্দোবস্ত করতে হয়েছে বিদেশের সহব্লগারকে অনুরোধ করে।

আপনার আশাবাদের প্রতি শ্রদ্ধা রইল। বাকিটা সময়ই বলে দেবে।

৭. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ২:২২০

ফিউশন ফাইভ বলেছেন: চলে যাবেন কেন? গুটিয়েই বা নেবেন কেন? ব্লগটা আপনার-আমার সবার। ব্লগে মান-অভিমান, রাগ-ক্ষোভ থাকবে- সেটাই স্বাভাবিক। সবকিছু বুকে পুষে রাখলে সেটা নিজের জন্যও ক্ষতিকর। সুতরাং রাগ-ক্ষোভ থাকলে সেটা বলে ফেলাই ভালো, এমনকি সেটা আমার বিরুদ্ধেও গেলেও স্বাগতম।

ভালো থাকবেন।

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ৩:২৬০

লেখক বলেছেন: মিডফিল্ডার পজিশনটা বেশ ভাল। দায় কম। হয় থ্রুপাস, নয়ত সেন্টব্যাক। কিপিং পজিশনটা রেস্পন্সেবল ।

৮. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ২:২৭০

ফিউশন ফাইভ বলেছেন: আপনি কি মন্তব্য মডারেশন করছেন? যদি সেটা হয়, তাহলে আপনার ব্লগে আর আসবো না এবং এটাই শেষ মন্তব্য।

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ৩:১৯০

লেখক বলেছেন: ব্লক মডারেশন কোনটাই না।

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ ভোর ৬:২৬০

লেখক বলেছেন: কী করা যায় বলুন দেখি? সবাকের পোস্টে আপনার ২১ নম্বর কমেন্ট পড়ে আপনাকে

ব্লক করতেও ঘেন্না লাগছে! ইউআরএল টা কপি করে নিয়ে পেস্ট করতে হবে

ভাবতেই একধরণের ঘিনঘিনে অনুভূতি হচ্ছে!

৯. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ২:৩৪০

শ*  বলেছেন: এই পোস্টের দরকার ছিল ।।

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ৩:২১০

লেখক বলেছেন: সম্ভবত।

আস্তিনের নিচে খঞ্জর দেখা গেছে!

১০. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ২:৪৭০

ম*বলেছেন: এই পোস্ট’টার আশায় ছিলাম …

তবে … ব্লগবিরতি’তে যান আপত্তি নেই, কোন “স্থায়ী রূপের” বিপক্ষে ।

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ৩:৩৭০

লেখক বলেছেন: উপায়ন্তহীন হয়েই পোস্ট দিতে হলো।

১১. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ২:৫০০

শ।মসীর বলেছেন: জনতার কাতারের সাধারণ ব্লগাররা সবাই ভাল থাকুন।

লেখালেখি চলুক, এই কথাটাই বলার আছে…….কে কি করল ফরগেট ইট।

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ৩:৩৬০

লেখক বলেছেন: লেখাটা আমার পেশা। সেটা থেমে নেই। লেখকদের অবসর বলতে কিছু নেই। ব্লগে নেই এই যা।

সেদিন আপনার সাথে পরিচিত হয়ে ভাল লেগেছে।

ভাল থাকবেন।

১২. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ২:৫৬০

চারু-চিত্ত বলেছেন:

মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম একজন ক্র্যাক প্লাটুনের সদস্য মুক্তিযোদ্ধা এবং বর্তমানে একজন দুর্নীতিকারী রাজনীতিবাজ । মায়া মুক্তিযোদ্ধা হলেও সম্মানযোগ্য নয় ।

তাই , বলা যায় , কিছু কিছু মুক্তিযোদ্ধা মুক্তিযুদ্ধ করলেও তাদের স্বাধীনতা পরবর্তী কার্যকলাপের জন্য তারা নিন্দনীয় ।

আমি আশা করি বুঝাতে পেরেছি ।

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ৩:১৫০

লেখক বলেছেন: রং নাম্বারে ডায়াল করেছেন।

১৩. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ৩:০০০

বিপরীত স্রোত বলেছেন:

আপনার লেখার আমি নিয়মিত পাঠক ছিলাম নতুন কোন ব্লগে লেখালিখি আরম্ভ করলে দয়া করে আমাদের জানাবেন

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ৩:৩৩০

লেখক বলেছেন: মুক্তাঙ্গন নির্মাণ ব্লগে লিখতাম। অন্য আর কোথাও না।

১৪. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ৩:১৩০

কঁাকন বলেছেন: ভালো থাকবেন; রাগ করে বা অভিমান করে বা অন্য যেকোন কারনে আপনার যেকোনভাবে আপনার প্রস্থান যে তাদের ই জয়ী করে সেটাতো আপনি বোঝেন ই; আশা করি বিরতীর পর নতুন উদ্যমে শুরু করবেন।

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ৩:৩১০

লেখক বলেছেন: শয়তানের পোস্টে আপনার মন্তব্য পড়েছিলাম। এতকিছুর মধ্যেও আপনি এখনকার লক্ষ্যবস্তু কে সেটা আঁচ করতে পেরেছিলেন।

কম্যুনিটিতে কখনো কখনো কাউকে না কাউকে “স্কেপগোট” বানিয়ে খোঁয়াড়ে আটকে সমাজসংস্কার দেখাতে হয়। তা না হলে

মধ্যবিত্ত শ্রেণীটা অন্তর্দহে আত্মহত্যা করত!

১৫. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ৩:২৬০

সায়েম মুন বলেছেন:

মান অভিমান রেখে লেখা চালিয়ে যান — এই আশা রাখি!

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ৩:৪৭০

লেখক বলেছেন: মান-অভিমান নয়, প্রশ্নটা মর্যাদার।

ওটি বিসর্জন দিলে মানুষে আর বন্যপ্রাণীতে পার্থক্য থাকেনা।

১৬. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ৩:৩৬০

বোবাবৃক্ষ বলেছেন: আপনি ডিপ্লোমেটিক ভাবে বিষয়টা হ্যান্ডেল করবেন,স্বাভাবিক, পেশাগতর স্কিল দিয়ে

এই ব্লগের অন্ত ৫/৬ জন সিনিয়র ব্লগারকে ‌’আমি’ ধরা হয় অথবা আমাকে ‘তারা’ ধরা হয়। অন্য একটি ব্লগেও প্রায় নিয়মিত তা নিয়ে রঙ্গরস চলে।

এইটা কোন যুক্তি হইতে পারে, যদি আপনে এর নাম কুযুক্তি রাখেন

যেহেতু তা আরো বেশি করে ‌’আপনি ধরা’ ধরা ‘তারা’ নন সম্পর্কেও আমাদের নিশ্চিত হতে সাহায্যকরে না, বরং সন্দেহ আরো ঘনীভূত হয়

ড্রাফট করেছি পোস্ট বাছাই করার জন্য।

এইটাও কোন যুক্তি হইতে পারে না

যেহেতু তা করতে চাইলে শুধুমাত্র ষ্পর্শকারতর পোষ্টগুলান ড্রফট করলেও চলতো।

১৭. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ৩:৪৪০

বোবাবৃক্ষ বলেছেন: লেখক বলেছেন: মিডফিল্ডার পজিশনটা বেশ ভাল। দায় কম। হয় থ্রুপাস, নয়ত সেন্টব্যাক। কিপিং পজিশনটা রেস্পন্সেবল । আপনে তাইলে নিজেরে কিপার ভাবতাছেন !!! কিসের একটু খোলাসা করে বলেন….মুল্যবোধের/দায়বদ্ধতার/আপনার অহমের/দেশের/জাতীর/যুবকদলের….? প্লিজ একটু ক্লিয়ার করেন বুঝতে সুবিধা হবে….

৭নং কমেন্টের জবাবে আপনি কি বলতে চাইছেন ফিউশন ফাইভ একজন মিডফিল্ডার? আরেকটু স্পষ্ট করে বলেন…আমরা সবাই সচেতন হই….

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ৩:৫০০

লেখক বলেছেন: “৭নং কমেন্টের জবাবে আপনি কি বলতে চাইছেন ফিউশন ফাইভ একজন মিডফিল্ডার?”

হ্যাঁ।

(দয়া করে এ নিয়ে আর প্রশ্ন করবেন না)

১৮. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ৩:৫০০

|জনারন্যে নিসংঙগ পথিক| বলেছেন:

মনজুরুল ভাই, পোষ্ট পড়ে বুঝতেছিনা কি হইছে আসলে। ব্লগে আসার সময়, শক্তি তেমন পাই না। কি শুরু হইছে আবার। আপনার অনেক পোষ্ট কিন্তু রেফারেন্স, বস এইটা মনে রাইখেন।

সংক্ষেপে মন খুইলা কন কোন গিদ্দরেরা আবার ছুরি শানাইতেছে?

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ৩:৫৭০

লেখক বলেছেন: আপনাকে নিয়ে এই এক সমস্যা। আপনার পরিবারটাই মনে হয় এমন। পর কে আপন করে নেয়ার অদ্ভুত এক ক্যারিশমা আছে ।

আপনার ছোট ভাইটির কথা মনে পড়ছে! বইমেলায় কিছুতেই আমার পাশে বসবে না! দাঁড়িয়েই থাকবে! তারপর জোর করেই বসালাম। মনে মনে আপনার বাবা-মায়ের প্রতি স্যালুট জানালাম এই নষ্ট সময়ে আইকন হিসেবে সন্তান মানুষ করার জন্য।

পরে একসময় মেইলে জানাব।

১৯. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ৩:৫৩০

বলেছেন: বলতে ভুলে গেছলাম

শুভ নববর্ষ মনজু ভাই

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ ভোর ৪:০০০

লেখক বলেছেন: ডাবল অফিসের ধক্কলে অনেকদিন পর একটা ছুটি মিলছে। সারাদিন পেটভরে ঘুমাব।

শুভ নববর্ষ

২০. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ ভোর ৪:১৩০

বোবাবৃক্ষ বলেছেন: নারী সুলভ কৌতুহল প্রকাশ করে (একটা দুঃখবোধ থেকে জন্ম নেয়া) আপনাকে বিব্রত করলে আমি লজ্জিত এবং ক্ষমা প্রার্থী…..

আসলে মিডিয়ায় করে খাওয়া মানুষ সংক্রান্ত কোন ঘটনা দেখলেই আমি আক্রান্ত হই, তাও আবার আপনার মতোন ভদ্রলোক এর সাথে সংশ্লিষ্ট….

করে খাওয়া বিষয়টা নিয়ে আমার আবার গভীর কৌতুহল আছে….দোআ করবেন আমি যেন সংশোধিত হই….(আমেন)।

সুপ্রভাত,শুভ নববর্ষ….

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ ভোর ৬:১৪০

লেখক বলেছেন: না না , ক্ষমা চাওয়ার মত কিছু করেননি আপনি। নানা ধরণের বক্রতার মোকাবেলা

করতে গিয়ে আমি খানিকটা বিরক্ত। তাই আপনাকে প্রশ্ন করতে নিষেধ করেছিলাম।

আপনার সাথে পরে আরো বিষয়ে আলোচনা হবে।

২১. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ ভোর ৪:২৪০

নিস্সঙ্গ যোদ্ধা বলেছেন: শুভ নববর্ষ। আপনি আবার আমাদের মাঝে নিয়মিত হন, এই প্রত্যাশা। ++++

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ ভোর ৬:১৬০

লেখক বলেছেন: জানিনা তা পারব কি-না। তবে লড়াই অব্যহত থাকবে।

২২. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ ভোর ৪:৪২০

নাজিম উদদীন বলেছেন: শুভ নববর্ষ।

এতসব পোস্ট দেখে কিছুটা বিভ্রান্ত ছিলাম। এ পোস্টের আসলেই দরকার ছিল। ভাল থাকবেন, আর আমাদের খোঁজ খবর নিবেন।

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ ভোর ৬:২০০

লেখক বলেছেন: পৃথিবীতে আসলে সবচেয়ে কঠিন আর ইন্টারেস্টিং সাবজেক্ট “মানুষ”। এটা মাঝে মাঝে ব্ল্যাকহোল বা নিউক্লিয়ার সায়েন্স থেকেও জটিল এবং একই সাথে ইন্টারেস্টিংও বটে।

নিশ্চই নাজিম। আমার সাধ্যমত সবারই খোঁজ-খবর নেয়ার চেষ্টা জারি থাকবে।

২৩. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ ভোর ৪:৪৬০

আশরাফ মাহমুদ বলেছেন: মনজু ভাই, এভাবে চলে যাওয়ার লোক আপনি নন; আপনাকে যতটুকু জানি তাতে এই কথা বোধ করি।

আপনাকে শুধু একটা অনুরোধ করবো, এখান থেকে সাময়িক বিরতি নিলে-ও ব্লগ ছাড়বেন না- বিকল্প তো সবাই কমবেশি খুঁজে নিতে জানে; আমরা যারা দূরে থাকি- খুব বিপাকে পড়ে যাবো।

এই সাইটটি দিনদিন ছাগুঘেঁষা হয়ে যাচ্ছে, ব্যক্তি-মালিকানাধীন সাইটে তা হতে পারে; কিন্তু এভাবে চলে যাওয়া মানে তাদের ফাঁকা মাঠে গোল করার সুযোগ দেয়া।

এতদিনের এতো পোস্ট, এতো মিথষ্ক্রিয়া সব ছেড়ে কেমন যেনো চলে যেতে ইচ্ছে করে না! তবু-ও চলে যেতে হয়।

সব সময় ভালো থাকুন, যেখানেই থাকুন।

======================

শুভ নববর্ষ।

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ ভোর ৬:০৯০

লেখক বলেছেন: কিছুদিন ধরে ঘেন্নায় গা রি রি করছিল। কিছু অত্যন্ত আপত্তিকর বিষয়ের প্রতিবাদ করতে গিয়ে দেখলাম তা এতই কদর্য যে তার উত্তর (ঘাটাঘাটি করলে) দিতে গেলে আরো বেশি গন্ধ ছড়াবে। নোংরা ঘেটে সৌন্ধর্য্য বের করার ধৈর্য-ইচ্ছা কোনটাই আর করেনা। তাই নীরবেই দূরে সরে ছিলাম। কিন্তু প্রথাগত খোঁচাখুচি দেখে বাধ্য হলাম ডিসক্লেইমার পোস্ট দিতে।

গত কয়েকমাস ধরে স্নায়ূর উপর মারাত্মক প্রেসার যাচ্ছিল। বিবাদ এড়িয়েই যাচ্ছিলাম, কিন্তু আমি এড়াতে চাইলে কি হবে বিবাদ তো আমাকে ছাড়ে না!

ওয়েল, এবার তাহলে কনফ্রন্টেশনটা সত্যিকার অর্থেই হবে। অলআউটই হবে।

ভাল থাকবেন আশরাফ।

২৪. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ ভোর ৫:০১০

লুকার বলেছেন:

কে কী কৈল? রেগেমেগে আরো বেশী বেশী লেখা শুরু করেন।

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ ভোর ৬:২১০

লেখক বলেছেন: হুম। না লিখে দেখি উপায়ও নেই!

২৫. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ ভোর ৫:২৩০

কানু বলেছেন: একবার ভেবেছিলাম আলাদা পোস্ট দিই, পরে ভাবলাম থাক। এখানেই রেকর্ড থাক। সামহোয়ারে ঘোষণা দিয়ে দুই ধরনের যাওয়া হয়। একটা পাকাপাকি যাওয়া। আরেকটা ফিরে এসো যেওনা সাথী ধরণের পোস্টের পর আবার ফিরে আসা। দ্বিতীয়টা নাটক কিসিমের বলে ব্লগারদের মধ্যে চিহ্নিত, সাধারণত অন্য কোনো ব্লগারের সঙ্গে মান অভিমানের পরে এটা হয়। আর প্রথমটিতে থাকে আত্মদহন। মনজুরুল হক চলে যাননি। তিনি যদি ঠিক করেন লিখবেন না, তার মানে এই নয় তিনি লগইন না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আশা করি অন্তত নিজের নামে ঢুকে মাঝে মাঝে উকি দিয়ে যাবেন।

নাটকের বাইরে যেসব যাওয়া সেসব পলিসির প্রতিবাদে। একটা সময় আমরা প্রায় ছাগুমুক্ত ব্লগ পেয়েছি। কারণ তাদের জন্য লেখার পরিবেশ ছিলো না। এই পরিবেশটাই কি ওয়ার্ড। এখন আস্তমেয়ে থেকে শুরু করে শাওন, ধানসিড়ি, উম্ম আবদুল্লাহ, বুড়া শাহরিয়ারের মতো প্রাচীন ছাগুরাও নির্বিবাদে ব্লগিং করতে পারছে। কারণ তাদের জন্য সেই পরিবেশ এখন সামহোয়ারে আছে। সেই পরিবেশটা আবার কারো জন্য বিপন্নতা তৈরি করতে পারে। কারণ কর্তৃপক্ষীয় নীতিমালার একপেশে প্রয়োগ ব্লগিংয়ে বড় রকম প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে পারে।

উদাহরণ দিয়ে বলা যাক। একজন লিখলেন বাঙলা দেশের জাতীয় সঙ্গীত রবীন্দ্র সংগীত, এটা ভারতীয় লেখকের এটা বদলানো উচিত। এই পোস্টটা নীতিমালায় আপত্তিকর। লাইনগুলো একটু বদলাবদলি করে লিখলেও। এখন কেউ এতে প্রতিক্রিয়া জানিয়ে পোস্ট দিলে তার বিরুদ্ধে মানহানী ব্যক্তি আক্রমণ ইত্যাদি ধারা সহকারে ঝাপিয়ে পড়বেন মডুরা (গুজব এর মধ্যে হিজাবীও আছেন দম্পতি মডুর একজন হিসেবে)। কার স্বার্থ দেখা হচ্ছে। দেশবিরোধী স্বাধীনতা বিরোধী চক্রান্তের, প্রচারণার। প্রতিবাদীদের নয়।

হাস্যকর কিছু কথাও বলেন কিছু ব্লগার। যোদ্ধারা লড়াইয়ের ময়দান ছাড়ে না, এটা কাপুরুষতা। তাদের কাছে প্রশ্ন আপনি লড়াই বলতে কি বোঝেন। সেই প্রেক্ষিত আপনি ব্যক্তিগতভাবে কি লড়াইটা লড়েছেন। যার বিরুদ্ধে আপনি কাপুরুষতার অভিযোগ আনলেন তার মানে আপনার লড়াইকে আপনি কিভাবে মূল্যায়ন করেন। নিজেকেই জিজ্ঞেস করবেন। একজন লড়িয়ে কার জন্য লড়বে? নিজের জন্য? তাহলে সেটা তার ব্যক্তিগত লড়াই, সেটায় সে পালালেও সমস্যা নেই। কিন্তু যখন কেউ আপনাদের জন্য লড়ে তখন তাকে জোরালো সমর্থন না দিয়ে প্লাস দিয়ে কাজ সারাটাকে লড়াই বলে না। এটা হচ্ছে আরেকজনকে লেলিয়ে দিয়ে বিশ্রামে থাকা। আর সেই মুখে অন্যের বীরত্ব নিয়ে মন্তব্য করাটাই ভন্ডামী।

মনজুরুল হক এই পোস্টে সুনির্দিষ্ট ভাবেই বলেছেন কিছু বন্ধু ব্লগারের ছদ্মবেশী ঘাতকের ভূমিকা পালনের। এদের আমরা সুশীল বলি। যখনই কর্তৃপক্ষের উপর কোনো ইস্যুতে ব্লগাররা জোট বাধেন, তখন তারা পুলিশী ভূমিকা নেন, প্রেসনোট দেন, কর্তৃপক্ষের কথা তাদের মুখে শোনা যায়। যেন পলিসি ঠিকই আছে, ব্লগাররাই ষড়যন্ত্র করছে। অন্য ব্লগের হয়ে বা গোষ্ঠীর হয়ে। পরিণাম তো দেখাই যাচ্ছে ব্লগের পাতায় পাতায়। আগামী কয়েকমাসে এর পরিণাম কি হতে পারে তাই নিয়ে আশঙ্কায় আছি। হয়তো ভূল করে কেউ নয়াদিগন্ত সংগ্রামের ওয়েবপেইজ ভেবে বসতে পারে।

হয়তো কেউই প্রয়োজনীয় নয়। কিন্তু কিছু জায়গা আছে যেগুলো আর কেউ কখনও নিতে পারে না। একজন মনজুরুল হককে কেউ যদি একজন লালসালু বা একজন বিদ্রোহী রণক্লান্ত কিংবা হিটলারের সাগরেদের পাল্লায় বিচার করে, তাহলে তার জন্য ব্লগের মান কোনো ইতরবিশেষ আনে না।

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ ভোর ৬:২১০

লেখক বলেছেন: কিছুই বলার নেই…….

২৬. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ ভোর ৫:৫৭০

মরি-নাই বলেছেন: মনজুদা আমার বাবা বলে নিজের দাড়ানোর জায়গাটা আগে। আর একটা কথাও বাবা বলে, নীতিবান মানুষের বন্ধু থাকে না। শুভ নববর্ষ দাদা।

১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ ভোর ৬:১১০

লেখক বলেছেন: আপনার বাবাকে সশ্রদ্ধ অভিবাদন।

শুভ নববর্ষ।

২৭. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ সকাল ৮:৪০০

মোস্তাফিজ রিপন বলেছেন: কেমন অস্বস্তিতে ছিলাম… ভাল লাগছে আপনার কথাগুলো জেনে।

এইতো আমার মনজুর ভাই!

১৬ ই এপ্রিল, ২০১০ ভোর ৪:১৯০

লেখক বলেছেন:

মনটা বিষিয়ে আছে রিপন। কোথায় জীবনের পরাজয়গুলোকে জয় করার মন্ত্র জপে মানুষকে বাঁচার পথের সন্ধান দেব, মানুষকে সাথে করে নিজে বাঁচব। তা না করে এখন অপ্রয়োজনীয় ছাইপাশ নিয়ে ভাবিত হতে হচ্ছে!

নিজেকই ধিক্কার দিতে ইচ্ছে করছে!

২৮. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ সকাল ১০:২৭০

সবাক বলেছেন:

আমি চাই উপযুক্ত ইস্যুতে আমার মতো নাদান ব্লগারের সাথেও মনজু ভাইয়ের ডিবেট হোক। যদি আমি চালিয়ে যেতে পারি। আর হ্যাঁ… এভাবেই ব্লগিঙ চলুক।

@ কানু…

আপনাদের একসময়কার ছাগুমুক্তি করণের পেছনে যে যে টার্মুগুলো ব্যবহৃত হয়েছে, সেখানে স্বীকৃতি পাবার লোভ ছিলো সুস্পষ্ট। যখন স্বীকৃতি পাওয়া যায়নি, তখনই সবাই লেজ গুটিয়েছে। অথচ এটা যদি দ্বায়িত্ববোধ থকে করা হতো তাহলে যে কোন মূল্যেই হোক সেটা বজায় থাকতো। আপনারাই রাখতেন।

নিজ ব্যর্থতাসমূহে লালকালির দাগ দিন আর ভালোমতো তালিম নিন।

২৯. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ সকাল ১১:০৫০

বলেছেন:

কানু বলেছেন:

হয়তো কেউই প্রয়োজনীয় নয়। কিন্তু কিছু জায়গা আছে যেগুলো আর কেউ কখনও নিতে পারে না। একজন মনজুরুল হককে কেউ যদি একজন লালসালু বা একজন বিদ্রোহী রণক্লান্ত কিংবা হিটলারের সাগরেদের পাল্লায় বিচার করে, তাহলে তার জন্য ব্লগের মান কোনো ইতরবিশেষ আনে না।

এটাই মোদ্দা কথা ।

৩০. ১৪ ই এপ্রিল, ২০১০ দুপুর ১:১৯০

কানু বলেছেন: সবাক@ আমি আপনার কাছে তালিম নিতে চাই। কিন্তু যা বুঝতেছি আপনার আসলেই বেইল নাই। আপনি ফিফার রাস্তায় হাটতেছেন

১৬ ই এপ্রিল, ২০১০ ভোর ৪:৩১০

লেখক বলেছেন: রতনে রতন চিনে!

৩১. ১৫ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ১২:৩৩০

দীপান্বিতা বলেছেন: কি হয়েছে, মনজুরুল ভাই! ……সব ঠিক হয়ে যাবে!……. আপনি অবশ্যই আবার লিখুন! কত্তো সুন্দর ছিল আপনার সেই মুক্তিযুদ্ধের পোস্টগুলো!

নববর্ষের অনেক অনেক শুভেচ্ছা নেবেন

১৬ ই এপ্রিল, ২০১০ ভোর ৪:২৪০

লেখক বলেছেন: খুব সহজে আমি হাল ছাড়ার মানুষ নই। দাঁতে দাঁত পিষেও লড়াইয়ের ময়দান ছাড়িনা। কিন্তু বছরের পর বছর দরে যাদের সহচার্যে সুন্দর সময় কাটিয়েছি, পরস্পরের ব্যবধান

শূণ্য করে এনেছি, তাদের হিপোক্র্যাসি দেখে দেখে আমি ক্লান্ত, বিরক্ত! মতাদর্শিক পার্থক্য থাকলেই কি বন্ধুর পেছনে কুকুর লেলিয়ে দিতে হবে?

ওরা তা-ই করেছিল।

৩২. ১৫ ই এপ্রিল, ২০১০ রাত ১২:৫৫০

ফ্রুলিংক্স বলেছেন: অনেকদিন অনুপস্হিত। উপমার চিকিতসার খবর নিতে আপনার ব্লগে ঢু মারি। কিন্তু সব তো ফাকা।

ব্লগের বিষয়ে কিছু বলার নাই। মডু মডু করতে করতে অনেকই শহীদ হয়েছেন। নিজের খেয়ে ছাগু তাড়াতে আর ভালো লাগে না। ভালো থাকবেন।

শুভ নববর্ষ (রসে ঠসঠস হাত খাতার মিষ্টি খেতে মঞ্চায়)।

১৬ ই এপ্রিল, ২০১০ ভোর ৪:৩১০

লেখক বলেছেন: কম্যুনিটির কিছু গাউস-কুতুব আমার বিরুদ্ধে পেছনে কুকুর লেলিয়ে দিয়েছে! কুকুর আর সাপে আমার বেজায় ঘেন্না।

উপমার চিকিৎসা বন্ধ হবেনা। আমি মরে গেলেও চলবে/ চলছে।

৩৩. ১৬ ই এপ্রিল, ২০১০ ভোর ৪:২০০

বলেছেন: অটঃ ডাক চেক করেন

১৬ ই এপ্রিল, ২০১০ ভোর ৪:২৭০

লেখক বলেছেন: ডাক আসে নাই!

১৬ ই এপ্রিল, ২০১০ ভোর ৪:২৯০

লেখক বলেছেন: ল্যাপ্পি বিষয়ে? সেটা তো আগেই পড়ছি।

গনেশ নাই

৩৪. ১৬ ই এপ্রিল, ২০১০ ভোর ৪:৪২০

স্বপ্নকথক বলেছেন: সালাম, কি কারণে থাকেননি সেটা অজানা নেই। এদের কিছু বলতে গেলে আমরাই হয়ে যাই খারাপ। ফিরে আসাটা আমার চাওয়া, ছোট ভাই হিসেবে।

অটঃ আপডেট দেইনি এখনো, মাছরাংগার ১০০০০ টাকা পেয়েছি। আশা ছিলো আরো। যাইহোক, শুনলাম রাগ করে আছেন। আমি ঠিক করেছিলাম ৬০/৭০ হাজার যেহেতু পাচ্ছি, পেলে একটা পোস্ট দিয়ে টাকা নেয়া বন্ধ করে দিবো। বার বার এক কথা বলে্ব ব্লগারদের জ্বালাতে ভালো লাগে না। আর একটা পোস্ট দেবো আজমেরীর জন্য এবং সেটা টাকা নেয়া বন্ধ করার পোস্ট। আশাকরি বুঝেছেন।

শুভেচ্ছা রইলো। দেখা হবে। বাড়ি গেলে আপনার জন্য প্রয়োজনীয় বইগুলো আনার চেষ্টা করবো।

ওহ! চারু-চিত্ত হলো হোসেইনের নিক।

১৬ ই এপ্রিল, ২০১০ ভোর ৪:৫০০

লেখক বলেছেন: আমাকেও সেইরকম বলেছিল। জানিনা এর মধ্যে আরো কিছু ঘটেছে কি-না! যাহোক ১০ এ তো হবেনা। বাকি টাকার ব্যাপারে “বিপ” এর সাথে কথা হয়েছে। দেখি সে কোন ব্যবস্থা করতে পারে কি-না। আর একটা পোস্ট দাও। মনে হয় হয়ে যাবে।

বইগুলো পেলে অনেক কাজে দেবে। তোমার বাবাকে আমার শুভেচ্ছা জানাবে।

কমেন্ট দেখেই আঁচ করেছিলাম। ও সহজে ব্লগ ছাড়বে না!

৩৫. ১৬ ই এপ্রিল, ২০১০ সন্ধ্যা ৬:৪২০

আকাশ অম্বর বলেছেন: খুব সহজে আমি হাল ছাড়ার মানুষ নই। দাঁতে দাঁত পিষেও লড়াইয়ের ময়দান ছাড়িনা। কিন্তু বছরের পর বছর দরে যাদের সহচার্যে সুন্দর সময় কাটিয়েছি, পরস্পরের ব্যবধান শূণ্য করে এনেছি, তাদের হিপোক্র্যাসি দেখে দেখে আমি ক্লান্ত, বিরক্ত! মতাদর্শিক পার্থক্য থাকলেই কি বন্ধুর পেছনে কুকুর লেলিয়ে দিতে হবে?

ওরা তা-ই করেছিল।


হুম। অপ্রস্তুত হয়ে গেলাম। কৌতুহল কিভাবে মেটাবো জানিনা। খুব নিয়মিত না হওয়ায় ব্যাপারগুলো অধরা থেকে গেলো। তবে কারণ যাই হোক না কেন, ব্যক্তিগতভাবে আপনাকে না চিনলেও, আপনি হাল ছাড়ার মানুষ নন এটা বুঝতে বেগ পেতে হয়না মোটেই। আপনি থাকুন, মনজুরুল ভাই। চলে যাওয়ার কোন কারণ কি আপনার জন্য যথেষ্ট হতে পারে?

নববর্ষের শুভেচ্ছা, নেবেন।

১২ ই জুন, ২০১০ ভোর ৪:৩৫০

লেখক বলেছেন: যাওয়া-ফেরা সবই আপেক্ষিক। এসব আসলে কোনো সূত্র মেনে চলেনা। কি জানি, হয়ত সারাজীবন এইসব সূত্রটুত্র খোঁজাখুঁজিতেই কেটে যাবে…

৩৬. ০২ রা আগস্ট, ২০১০ রাত ২:০৩০

দুরন্ত স্বপ্নচারী বলেছেন: হক ভাই কেমন আছেন?

০২ রা আগস্ট, ২০১০ রাত ২:০৯০

লেখক বলেছেন: ভাল আছি স্বপ্নচারী। ব্লগের জন্য সময় বের করা এখন আমার জন্য তেঁতুল গাছ থেকে খেজুরের রস বের করার মত দূরূহ!

আজ একখণ্ড সময় পাওয়ায় এক ফাকে ঘুরে গেলাম আর কি।

৩৭. ১০ ই আগস্ট, ২০১০ দুপুর ১:৫১০

তায়েফ আহমাদ বলেছেন: আছেন তাহলে এখনো……?
০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১০ রাত ৩:২৩০

লেখক বলেছেন:

হতাশ হলেন নাকি ?

৩৮. ১১ ই আগস্ট, ২০১০ দুপুর ২:০৯০

শ্রাবনসন্ধ্যা বলেছেন: শুভ জন্মদিন, মনজুরুল ভাই। আপনার ব্লগে বেলুন ওড়ে না কেন!

১১ ই আগস্ট, ২০১০ রাত ৮:১৩০

লেখক বলেছেন:

আমার আবার জন্মদিন ! তার আবার বেলুন !!

তাও মনে যে রেখেছেন সে জন্য অজস্র ধন্যবাদ শ্রাবণ।

৩৯. ০২ রা সেপ্টেম্বর, ২০১০ সকাল ৯:২২০

ছায়াপাখির অরণ্য বলেছেন: আপনার চলে যাওয়ার গুজবে বেশ হতাশ হয়েছিলাম। আমি ব্লগে খুব কম আসি । এর মধ্যে যাদের লেখা নিয়মিত পড়ি, আপনি তাদের একজন । কি ঘটেছে আমি কিছু জানি না, তবে আপনার নিয়মিত পাঠক হিসেবে আপনার লেখা পাওয়ার প্রত্যাশা করব। অনেক ভালো থাকবেন ।

০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১০ রাত ৩:২০০

লেখক বলেছেন:

“নিয়মিত পাঠক” কথাটি পড়ে একটা দায়বোধ তৈরি হয়। সেই দায়বোধেই আজ লগইন করলাম।

আমি আসলেই ব্লগ ছেড়ে দিয়েছি। সময়, ইচ্ছা কোনোটাই হয় না। মাঝে মাঝে, এই যেমন উপমাকে নিয়ে পোস্ট দেয়ার জন্য, কিংবা ডিসক্লেইমার দেয়ার জন্য আসতে হয়।

ভালো থাকবেন তানিয়া। আবার যদি দেখি ব্লগে লেখালেখির পরিবেশ ফিরেছে, আর আমারও সময় হচ্ছে, তাহলে নিশ্চই ফিরব।

৪০. ০৩ রা সেপ্টেম্বর, ২০১০ সকাল ১০:০৫০

ছায়াপাখির অরণ্য বলেছেন: আপনিও অনেক ভালো থাকবেন। আপনার ফেরার প্রত্যাশায় রইলাম…

২৪ শে সেপ্টেম্বর, ২০১০ রাত ২:৫২০

লেখক বলেছেন:

লেখা নিয়ে ফেরা হয়ে উঠছে না।

তবে এই যে কমেন্টের উত্তর দিতে এলাম!

আপনার প্রত্যাশা ফলবতি হোক তানিয়া।

 

Top of Form

আপনার মন্তব্য লিখুন

কীবোর্ডঃ  বাংলা                                    ফোনেটিক ইউনিজয় বিজয় ভার্চুয়াল   english

নাম

Bottom of Form

 

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s